দৈনিক সান্তাহার

আদমদীঘির ইউএনও আব্দুল্লাহ বিন রশিদের হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে বন্ধ

সান্তাহার ডেস্ক :: আদমদীঘিতে দশম শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রীর (১৬) বাল্যবিয়ে বন্ধ করলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) একেএম আব্দুল্লাহ বিন রশিদ। বিয়ে বন্ধ করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বর অন্তর চৌধুরীকে (১৯) এক মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও কনের পিতা সাহির প্রামানিকের ৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

পাশাপাশি বাল্যবিয়ের সাথে সম্পৃক্ততা না রাখতে ওই ওয়ার্ডের মেম্বার আলী মর্তুজা কিনাকে প্রথমবারের জন্য সতর্ক করে দেন। ওই ছাত্রীর বাড়ি উপজেলার ছাতিয়ানগ্রাম ইউনিয়নের চকসাবাজ গ্রামে। সে উথরাইল উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থী।

মেম্বারের উপস্থিতিতে ওই ছাত্রীর বাড়িতে বাল্য বিয়ের আয়োজন চলছে- এমন গোপন সংবাদ পেয়ে বুধবার রাত সাড়ে ১২টায় চকসাবাজ গ্রামে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বিয়ে বাড়িতে উপস্থিত হয়ে বিয়ে ভেঙে দেন এবং ওই রাতেই ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে বাল্যবিবাহ নিরোধ আইনে বরকে এক মাসের কারাদন্ড ও কনের পিতাকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

এ সময় তিনি ওই ছাত্রীকে প্রাপ্ত বয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে না দেয়ার নির্দেশ দেন। বর ওই এলাকার পশ্চিম সিংড়া পাড়ার আকরাম চৌধুরীর ছেলে। বৃহস্পতিবার সকালে মেম্বার আলী মর্তুজা কিনা বলেন, ওই এলাকার জনপ্রতিনিধি হওয়ায় কেউ বিয়ের দাওয়াত দিলে সেখানে তাকে যেতে হয়। তবে তিনি বাল্য বিয়েতে সহযোগিতার বিষয়টি অস্বীকার করেন।

সান্তাহার ডটকম/২১ আগস্ট ২০২০ইং/এমএম

About the author

Santahar Team

Add Comment

Click here to post a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *