দৈনিক সান্তাহার

কালভার্ট ধসে যান চলাচল বন্ধ

santahar kalvatসান্তাহার-নাটোর বাইপাস সড়কের পানলা গ্রামের কাছে অবস্থিত যে কালভার্টটি এত দিন ধরে জোড়াতালি দিয়ে চলছিল, তা শেষ পর্যন্ত ধসে পড়েছে। এতে তিন দিন ধরে ওই সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। দুর্ভোগে পড়েছে সাধারণ মানুষ।
জানা গেছে, ওই বাইপাস সড়কের সান্তাহার-রানীনগর অংশের পাঁচ কিলোমিটারের মধ্যে রয়েছে সাতটি ঝুঁকিপূর্ণ ও সরু কালভার্ট। বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের মেয়াদকালের শেষ দিকে তড়িঘড়ি করে ওই বাইপাস সড়কটি নির্মাণ করা হয়। পরে সড়কের দুপাশ প্রশস্ত করা হলেও রয়ে যায় পুরোনো কালভার্টগুলোই। গত রমজান মাসে ওই সড়কের সান্তাহার ইউনিয়নের হেলালিয়া হাটের উত্তর দিকে অবস্থিত ঝুঁকিপূর্ণ ও সরু একটি কালভার্টের ঢালাই করা পাটাতনের এক পাশ ধসে পড়ে। পরে তা সংস্কার করা হয়। কিন্তু পরিস্থিতির কোনো উন্নতি হয়নি। এদিকে সর্বশেষ গত মঙ্গলবার রাতে আবার ধসে পড়ে ওই সড়কের পানলা নামক স্থানের আরেকটি কালভার্ট। এ কালভার্টটিও আগে একাধিকবার জোড়াতালি দেওয়া হয়েছিল। এই কালভার্টটি ধসে পড়ায় ওই সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।
বৃহস্পতিবার সকালে সরেজমিনে দেখা যায়, ওই সড়কের দায়িত্বে থাকা নওগাঁ সড়ক ও জনপথের (সওজ) এক মিস্ত্রি ও চার থেকে পাঁচজন শ্রমিক ধসে পড়া কালভার্ট সম্পূর্ণ ভেঙে ফেলার কাজ করছেন। তারা বলেন, এখন এখানে সাড়ে ১১ ফুট চওড়া একটি বেইলি ব্রিজ নির্মাণ করা হবে। মালামালও আনা হয়েছে।
সরেজমিনে আরও দেখা গেল, সান্তাহার থেকে স্থানীয় বাহনে করে যাত্রীরা ধসে পড়া কালভার্টের উত্তর পাশে ও রানীনগর থেকে এসে দক্ষিণ পাশে নামছে। তারপর সান্তাহার থেকে আসা যাত্রীরা রেললাইন-সংলগ্ন খালের কাদাজল পেরিয়ে রেললাইন ধরে প্রায় আধা কিলোমিটার হেঁটে প্রান্নাথপুর মোড়ে গিয়ে যানবাহনে উঠছে। তবে রানীনগরের লোকজন ভাঙা কালভার্টের কাছ থেকেই অন্য যানবাহনে উঠে ঘুরপথে গন্তব্যে রওনা হতে পারছেন।
ভেঙে পড়া কালভার্টের জায়গায় কর্মরত সওজের প্রধান মিস্ত্রি আবদুল কাদের বলেন, এখানে ধসে পড়া অবকাঠামো সরিয়ে লোহার বেইলি ব্রিজ নির্মাণ করতে কমপক্ষে পাঁচ দিন সময় লাগতে পারে। এদিকে ওই সড়কে সরাসরি যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় সিএনজিচালিত অটোরিকশা, রিকশা-ভ্যানসহ বিভিন্ন যানবাহনচালকের রোজগার প্রায় বন্ধ হয়ে গেছে। দুর্ভোগে পড়েছে এ পথে চলাচলকারী মানুষ। এ ছাড়া পুরোপুরি বন্ধ হয়ে গেছে সান্তাহার থেকে রানীনগর ও রানীনগর থেকে সান্তাহার নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য পরিবহন।
নওগাঁ সওজ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী হামিদুল হক বলেন, ২৫ জুলাইয়ের মধ্যে বেইলি ব্রিজটির নির্মাণকাজ শেষ করা হবে। তিনি আরও বলেন, এই সড়কের ঝুঁকিপূর্ণ সব কালভার্টই নতুন করে নির্মাণ করা হবে। ইতিমধ্যে সে লক্ষ্যে কার্যক্রম শুরুও করা হয়েছে।
সান্তাহার ডটকম/ইএন- ২২ জুলাই ২০১৬ইং

About the author

Santahar Team

Add Comment

Click here to post a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *