দৈনিক সান্তাহার

ঝুঁকিপূর্ণ ১০ ভবনে চলছে প্রশাসনিক কার্যক্রম

Santahar Adamdighiসান্তাহার ডেস্ক:: আদমদীঘি উপজেলা প্রশাসন ক্যাম্পাসে অবস্থিত গুরুত্বপূর্ণ ১০টি ভবন ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। এর মধ্যে আছে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বাসভবন, সাবেক আদালত ভবন, পুরাতন প্রাথমিক শিক্ষা অফিস. কৃষি অফিসের গুদাম, জনস্বাস্থ্য অফিস, সমাজসেবা অফিস. বিআরডিবি অফিস ও মহিলাবিষয়ক অধিদপ্তর। ভবনগুলোর দেয়াল দেবে গিয়ে হেলে পড়েছে। এ ছাড়া বেশ কয়েকটি স্থানে ফাটল দেখা দিয়েছে। ফলে এসব অফিসে রাখা লাখ লাখ দলিল, বালামবই ও মূল্যবান কাগজপত্র নষ্টসহ যে কোনো মুহূর্তে ভবন ধসে প্রাণহানি ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা রয়েছে।
উপজেলা পরিষদ চত্বর ঘুরে দেখা যায়, উপজেলা ক্যাম্পাসে অবস্থিত পুরাতন প্রাথমিক শিক্ষা অফিস. বিআরডিবি ও কৃষি অফিসের গুদাম ভবন সাত বছর আগে পরিত্যক্ত ঘোষণা করে বন্ধ রাখা হয়। এর মধ্যে বিআরডিবি, শিক্ষা অফিস স্থানাস্তর করা হলেও উপজেলা সমাজসেবা অফিস, মহিলাবিষয়ক অফিস তাদের কার্যক্রম পরিত্যক্ত ভবনেই চালাচ্ছে। পরিত্যক্ত কৃষি অফিসের গুদাম, সমাজসেবা অফিস ও প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের পাশ দিয়ে রয়েছে স্কুল-কলেজগামী ও জনসাধারণের যাতায়াতের রাস্তা। এ রাস্তা দিয়ে ঝুঁকিতে প্রতিদিন নিয়মিত চলাচল করে ছাত্রছাত্রী ও জনসাধারণ। এ ছাড়া আদমদীঘি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বাসভবন, সাবেক আদালত ভবন বর্তমানে সাব-রেজিষ্ট্রি অফিস, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস, বিআরডিবি ও ভূমি জরিপ অফিস ভগ্নপ্রায় অবস্থায় কার্যক্রম চালাচ্ছে। এসব ভবনের দেয়ালে ফাটল ও ছাদের পানি চুইয়ে মূল্যবান দলিল, বালামবইসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নষ্ট হচ্ছে।
এদিকে পরিত্যক্ত হেলে পড়া ও ফাটল ধরা ভবনগুলো দীর্ঘদিনেও অপসারণ বা ভেঙে না ফেলায় পাশের রাস্তা দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে পথচারীদের। অন্যদিকে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে আতঙ্কের মধ্যে চলছে সমাজসেবা অফিস, মহিলাবিষয়ক অফিস, সাব-রেজিস্ট্রি অফিস, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসসহ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ অফিসের কার্যক্রম। উপজেলা পরিষদ থেকে পরিত্যক্ত ভবনগুলো অপসারণের জন্য ঊর্ধ্বতন কতৃপক্ষের কাছে লিখিতভাবে জানানো হলেও তা বাস্তবায়ন হয়নি। সংশ্লিষ্টরা জানান, অবিলম্বে পরিত্যক্ত কৃষি অফিসের গুদাম, পুরাতন প্রাথমিক শিক্ষা অফিস, সমাজসেবা অফিস, মহিলাবিষয়ক ভবনসহ কয়েকটি ঝুঁকিপূর্ণ ভবন অপসারন করা না হলে ধসে প্রাণহানির আশঙ্কা রয়েছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রেজাউল করিম ঘটনা নিশ্চিত করে জানান, কয়েকটি ভবন পরিত্যক্ত ঘোষণা করে তা জরুরিভাবে অপসারণ এবং উপজেলা প্রশাসনিক ভবন নির্মাণের জন্য সংশ্লিষ্ট দপ্তরে কয়েকবার লিখিত আবেদন করা হয়েছে। অনুমতি পাওয়া গেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সূত্র: সমকাল

>> সান্তাহার ডটকম/ইএন/১৮ মার্চ ২০১৭ইং

About the author

Santahar Team

Add Comment

Click here to post a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *