সান্তাহারের বাহিরে

রাণীনগরে পুকুরের মালিকানা নিয়ে মারপিট, আহত ছয়

সান্তাহার ডেস্ক :: নওগাঁর রাণীনগরে একটি পুকুরের মালিকানা নিয়ে মারপিটের ঘটনা ঘটেছে। এতে মহিলাসহ অন্ত:ত ছয়জন আহত হয়েছেন। আহতদের নওগাঁ ও আদমদীঘি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শুক্রবার রাতে উপজেলার পারইল উত্তরপাড়া গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটেছে।

জানা গেছে, ওই গ্রামের মৃত শমসের আলী মন্ডলের ছেলে ওসমান গংরা শরিকানা একটি পুকুরের মালিকানা দাবি করে। এতে প্রতিপক্ষ আদমদীঘি উপজেলার তালশন গ্রামের সিবেশ চন্দ্র মৈত্র (ইদুল বাবু) দখল না দিলে ওসমান মন্ডল মালিকানা দাবি করে আদালতে মামলা দায়ের করেন।

এরই মধ্যে শুক্রবার রাতে পুকুরের দখল নিয়ে ইজারাকৃত পুকুর চাষকারী বেলালের সাথে সংর্ঘষ বাধে। এতে বেলাল মন্ডল (৩৫), তার স্ত্রী মঞ্জিলা বেগম (৩৫), হারুনুর রশিদের ছেলে জনি আহম্মেদ (২৩), ময়েন উদ্দিনের ছেলে সুমন (২৮), মৃত শমসেরের ছেলে ইউনুছ আলী (৪০) ও ইউনুছ আলীর ছেলে শহিদুল ইসলাম (২৮) আহত হয়। আহতদের নওগাঁ ও আদমদীঘি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ওসমানের ছোট ভাই আনিছুর বলেন, আমাদের সম্পন্ন কাগজপত্র থাকলেও তারা দখল দিচ্ছে না। বাধ্য হয়ে আমরা আদালতে মামলা দিয়েছি। ওই পুকুরে আমরাও মাছ ছেরেছি। কিন্তু রাতে পুকুরের মালিকানার বিষয় নিয়ে কথা কাটা কাটির একপর্যায়ে আমাদেরকে মারপিট করেছে।

পুকুর চাষী বেলাল মন্ডল বলেন, আমরা আমাদের অংশ তালশনের ইদুল বাবুর নিকট বিক্রি দিয়েছি। এরপর প্রায় ৫-৭ বছর ধরে আমিসহ কয়েকজন ওই পুকুর লিজ নিয়ে মাছ চাষ করে আসছি। পুকুরের মালিকানা নিয়ে ওসমান মন্ডল আদালতে একটি মামলাও দিয়েছে। অথচ মামলা নিষ্পত্তি না হতেই দখল করার জন্য পুকুরে মাছ ছেরেছে। এটা নিয়ে ওসমান তার লোকজন নিয়ে আমাদের উপর হামলা করে মারপিট করেছে।

এ ব্যাপারে রাণীনগর থানার ওসি মো: জহুরুল হক বলেন, মারপিটের খবর পেয়ে সাথে সাথে সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। এ ঘটনায় এখনো কোন পক্ষ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সান্তাহার ডটকম/ ০৮ আগস্ট ২০২০ইং /এমএম