দৈনিক সান্তাহার

সান্তাহারে বাড়ছে ভিক্ষুক এক টাকাতেও অনিহা

fokirভিক্ষুক মানেই সহায় সম্বলহীন ছিন্নমূল মানুষ। নিছক পেটের দায়ে অন্যের কাছে হাত পেতে বাঁচার চেষ্টা করা। গাছতলায়, ফুটপাত বা রাস্তার উপর পোকা মাকড়ের মতো পড়ে থাকা। বড়জোড় ভাঙ্গাচোরা বস্তিঘরের সংসার। বৃষ্টি এলে ভিজবে। রোদ এলে পুড়বে। এটাই জানে প্রচলিত সমাজ।
রেলওয়ে জংশন শহর সান্তাহার। রাজধানীর মতো এই শহরের ভিক্ষুকদের আনাগোনা। সকালের আলো ফুটতে না ফুটতেই ভিক্ষুকদের সমাগম সান্তাহারে। দূর দূরান্ত থেকে আসা ঝাঁকে ঝাঁকে ভিক্ষুকদের ভীড় শুরু হয় দোকানগুলোর সামনে। বৃহস্পতিবার তাদের সংখ্যা তুলনামূলক বাড়ে। বিনাপুজিঁর এ ব্যবসায় লাগে না কোন লাইসেন্স, দরকার নেই কোন প্রতিষ্ঠানের। হাত বাড়াও ভিক্ষা নাও আর সে টাকা পকেটে তোলো। মজার ব্যাপার, নানান সাজে আসে ভিক্ষা করতে তারা।
অনুসন্ধানে জানা যায়, সান্তাহারে যে সমস্ত ভিক্ষুকদের ভীড় হয় তারা আসে মূলত রংপুর, গাইবান্ধা, দিনাজপুর, জয়পুরহাট, নাটোরের ভিন্ন জায়গা থেকে। সে সঙ্গে তো সান্তাহারের এবং পাশের জেলা নওগাঁর ভিক্ষুকরা আছে।
কেন এতো ভিক্ষুকের সমাগম হয় সান্তাহারে। এমন প্রশ্নে উত্তর আসে, সান্তাহার একটি ব্যবসায়ী রুট। ছোট শহর হলেও এখানে মানুষের আনাগোনা বেশি, স্টেশন এলাকা। এছাড়া এক জেলার মানুষ অন্য জেলাতে ভিক্ষা করলে মানুষও চিনে না।
কিছুদিন আগেও ভিক্ষুকরা ১ টাকাকে সন্তুষ্ট থাকলে বর্তমানে তারা এক টাকায় নাখোশ। নিতেও অনিহা করে। আবার কেউ কেউ রীতিমতো কথা শুনাতেও শুরু করেছে।
অনুসন্ধানে আরো জানা যায়, ভিক্ষাবৃত্তিতেও রয়েছে নানা ছলচাতুরি ও কৌশল। দৈহিক পুঙ্গত্ব, বার্ধক্য কাজে লাগিয়ে যেমন ভিক্ষা করতে দেখা যায় তেমনি কোনো জীবন্ত ব্যক্তিকে লাশ সাজিয়ে ভিক্ষা করতে দেখা যায়। কাউ কাউ অসুখের চিকিৎসা করানোর কথা বলে একটি প্রেসক্রিপশন দেখিয়ে, পুষ্ঠিহীন রুগ্ন শিশুকে কোলে নিয়ে, কেউ বা ময়লা ও ছেড়া কাপড় পড়ে ভিক্ষা করে। বোবা সেজে, মেয়ের বিয়ের ও বাবা মায়ের বা অন্য কোন স্বজনের মৃত্যুর কথা বলে মানুষের কাছ থেকে হাত পেতে টাকা নেয় বা ভিক্ষা করে। ব্যাগ আর টাকা পয়সা চুরি বা ছিনতাই হয়েছে বলে, কেউ কেউ বাড়ি যাওয়ার জন্য ভাড়ার নামে ভিক্ষা করে।
সান্তাহারে ভিক্ষুকদের কারণে অনেক সাধারণ মানুষের বিভ্রান্তি পোহাতে হয়। সব মিলিয়ে শহর থেকে ভিক্ষুক না প্রতিরোধ করা গেলেও এই বাহিরে থেকে আগত ভিক্ষুকদের প্রতিরোধ করা দরকার।
নাম প্রকাশে সান্তাহারের এক ব্যক্তি বলেন, সান্তাহারের মতো ব্যস্ত শহরগুলোতে ভিক্ষুকদের জন্য আইন প্রণয়ন দরকার। তা না হলে যেমন হালকা বিভ্রান্তিতে অনেকে বিভ্রান্ত হচ্ছে সেটি একদিন বৃহৎ আকার ধারন করবে।

সান্তাহার ডটকম/সান্তাহার ডটকম টিম/০৯-মে-২০১৬ইং

About the author

Santahar Team

Add Comment

Click here to post a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *